মহানবী (দঃ) এর আগমন সমগ্র সৃষ্টির জন্য নেয়ামতে আকবর- মহানবী (দঃ) এর আগমন সমগ্র সৃষ্টির জন্য নেয়ামতে আকবর- সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ মাইজভান্ডারী

মহানবী (দঃ) এর আগমন সমগ্র সৃষ্টির জন্য নেয়ামতে আকবর-
সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ মাইজভান্ডারী
২৫ জানুয়ারী ২০১৩ শুক্রবার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন রমনা ঢাকা মিলনায়তনে পবিত্র ঈদ-এ মিলাদুন্নবী (দঃ) উপলক্ষ্যে আন্জুমানে রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভান্ডারীয়ার ব্যবস্থাপনায় মাইজভান্ডার দরবার শরীফের বর্তমান ইমাম ও সাজ্জাদানশীন দরবার -এ গাউছূল আজম মাইজভান্ডারী হযরতুলহাজ্ব শাহসূফী মাওলানা সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী ওয়াল্ হোসাইনী মাইজভান্ডারী (মাঃজিঃআঃ) এর সভাপতিত্বে ও নেতৃত্বে এক আলোচনা সভা ও বর্ণাঢ্য জশ্নে জুলুস অনুষ্ঠিত হয়।

এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় তথ্য মন্ত্রী জনাব হাসানুল হক ইনু। সম্মানিত মেহমান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় ধর্ম প্রতিমন্ত্রী এ্যাডভোকেট মোঃ শাহজাহান মিয়া, বিরোধী দলীয় চীফ হুইফ জনাব জয়নাল আবেদীন ফারুক(এম পি) সহ দেশের প্রখ্যাত ইসলামী চিন্তাবিদ, ব্যবসায়ী, রাজনীতিবিদ, আন্জুমানের সকল স্তরের সদস্য ও আশেকানবৃন্দ।

সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী ওয়াল্ হোসাইনী মাইজভান্ডারী তাঁর বক্তব্যে বলেন- মহিমাময় মহান রাব্বুল আলামীনের দরবারে লাখো কোটি শুকরিয়া যিনি আমাদের জন্য নেয়ামতে আকবর স্বরুপ তাঁর প্রিয় হাবিবে কিবরিয়া, নূরে মূজাচ্ছাম, শাফীউল মুজনেবীন, রাহমাতাল্লি¬ল আলামীন, সাইয়্যেদুল আস্বিয়া হুজুরপুরনূর আহমদে মুজতবা মোহাম্মদ মোস্তফা (দঃ) কে পৃথিবীতে পাঠিয়ে সমস্ত সৃষ্টি জগতকে ধন্য করেছেন। আল্লাহর সন্তষ্টি অর্জনের এক উত্তম উছিলা হিসাবে সমগ্র বিশ্ববাসীর উচিত হুজুর করিম (দঃ) এর এই বেলাদত দিবস উপলক্ষ্যে আজিমুশ্বান অনুষ্ঠান পালন করা। পবিত্র কোরআনুল হাকিম-এ আল্লাহ পাক প্রিয় নবী (দঃ) সহ অন্যান্য নবী রাসুলদের মিলাদনামা প্রকাশ করেছেন এবং জন্মের আলোচনা ও শুকরিয়ার আনন্দ প্রকাশ করার নির্দেশ দিয়েছেন বলে উল্লেখ করেন।

প্রধান অতিথি ও বিশেষ মেহমানগন আলোচনায় অংশ নিয়ে বলেন- পবিত্র ঈদ-এ মিলাদুন্নবী (দঃ) উপলক্ষ্যে বিশাল সমাবেশ ও বর্ণাঢ্য জশ্নে জুলুসের আয়োজন রাসূলে পাকের প্রতি ভালবাসার বহিঃপ্রকাশ। এ দিবসের একটি স্বাতন্ত্র্য বৈশিষ্ট্য ও মাহত্ব রয়েছে এবং রবিউল আউয়াল মাসের এই দিনটি বহু সম্মানিত ও তাৎপর্যপূর্ন। আলোচনায় আরো বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ড. এম এম নিয়াজী, মুফতী মাওলানা নুরুল ইসলাম জামালপুরী, মাওলানা রুহুল আমিন ভুইয়া প্রমুখ। আলোচনা শেষে সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ মাইজভান্ডারীর নেতৃত্বে জশ্নে জুলুস (আনন্দ শোভাযাত্রা) রাজধানীর প্রেসক্লাব, পল্টন, কাকরাইল, মৎস ভবন হয়ে প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে এসে বিশ্ব উম্মাহর ঐক্য, সংহতি, শান্তি, মানবতার কল্যান এবং দেশের অগ্রগতি কামনা করে বিশেষ মোনাজাত ও তবারক বিতরনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়।

This entry was posted in Uncategorized. Bookmark the permalink.

No Comments