চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্বরে আন্জুমানে রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভান্ডারীয়ার মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ।

চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব চত্বরে আন্জুমানে রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভান্ডারীয়ার মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ।

১০ অক্টোবর-১২ বুধবার বিকেলে চট্টগ্রাম জাতীয় প্রেসক্লাব চত্বরে যুক্তরাষ্ট্রে চলচ্চিত্র নির্মাণ, ফ্রান্সের পত্রিকায় ব্যঙ্গ চিত্র প্রকাশ করে ইসলাম ও রাসূলে করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াছাল্লামকে অবমাননা করা, মিয়ানমারের আকিয়াবে পাঁচশত বৎসর পুরাতন স্থানীয় বড় জামে মসজিদে আগুন লাগানো, বিশ্বেও বিভিন্ন দেশে ধর্মীয় উগ্রতা ও হিংসা হানা-হানি সহ মানবতা বিরোধী কর্মকান্ডের প্রতিবাদে এবং বাংলাদেশে রামু-উখিয়া-পটিয়াসহ বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ঠকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে “আন্জুমানে রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভাণ্ডারীয়া”র উদ্যোগে হাজার-হাজার ধর্মপ্রাণ মানুষ আজ বিশাল মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে ।

চট্টগ্রাম মাইজভান্ডার দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন ও আন্জুমানে রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভান্ডারীয়ার সভাপতি হযরত শাহ্সূফী মাওলানা সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী মাইজভান্ডারী (ম.জি.আ) এই মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশের নেতৃত্ব দেন। তিনি বলেন- সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির মডেল হিসেবে বাংলাদেশ বিশ্ববাসীর নিকট সুপরিচিত । হাজার বছর ধরে এখানে সকল ধর্মের মানুষ শান্তি ও সম্প্রীতির মধ্য দিয়ে বসবাস করে আসছে।

কক্সবাজার রামু-উখিয়া, পটিয়ার বৌদ্ধ-হিন্দু উপসানলয়ে যারা নৃশংস হামলা করেছে এবং বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে যারা একে অণ্যেও উপসনালয় বা অন্য সাধারনের উপর আঘাত করছে তারা মানবতাকে ভূলুন্ঠিত করেছে। তাদের প্রধান পরিচয় হলো তারা দুর্বৃত্ত মানবতা বিরোধী মনুষত্য হীন পশু। তিনি ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান। বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ঐতিহ্য অক্ষুন্ন রাখতে জাতীয় স্বার্থে সংখ্যালঘুদের জান-মালের নিরাপত্তা বিধান করা সরকারের পাশাপাশি সকলের নৈতিক দায়িত্ব বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

তিনি আরো বলেন- বিশ্ব শান্তি ও সংহতি রক্ষার প্রয়োজনে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতকারীদের অতি দ্রুত গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করণের বিধান সর্বসম্মত ভাবে আইনে পরিণত করা এবং বিশ্ব সংস্থাকে তা নিরপেক্ষভাবে প্রয়োগের পদক্ষেপ নিতে হবে। কোন প্ররোচনা ও উস্কানিতে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য তিনি মানববন্ধনে সকল ধর্মের অনুসারীদেরকে সহনশীলতার পরিচয় দেয়ার আহবান জানান।

This entry was posted in Uncategorized. Bookmark the permalink.

No Comments