আহ্লে সুন্নাত ওয়াল জামাতের সঠিক আক্বিদার সংরক্ষক ও প্রচারক হিসেবে মাইজভান্ডারী ত্বরীক্বার বিকল্প নেই

আহ্লে সুন্নাত ওয়াল জামাতের সঠিক আক্বিদার সংরক্ষক ও প্রচারক হিসেবে মাইজভান্ডারী ত্বরীক্বার বিকল্প নেই -আহ্লে সুন্নাত ওয়াল জামাতের উদ্যোগে ফটিকছড়ি নাজিরহাট সুন্নি সম্মেলনে-আল্লামা সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী (ম.জি.আ.)

আহ্লে সুন্নাত ওয়াল জামাত বাংলাদেশের উদ্যোগে চট্টগ্রাম ফটিকছড়িস্থ নাজিরহাট জারিয়া কমিউনিটি সেন্টার সংলগ্ন ময়দানে ১১ মে’২০১২ ঈসাব্দ, জু’মাবার সুন্নি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন- মাইজভান্ডার দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন, রাহনুমায়ে শরীয়ত ও ত্বরীক্বত হযরতুলহাজ্ব মাওলানা শাহ্সূফী সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী ওয়াল হোসাইনী আল্-মাইজভান্ডারী (ম.জি.আ.)।

তিনি বলেনÑ ৫৭০ ঈসাব্দের ১২ রবিউল আউয়াল প্রিয় নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সমগ্র জগতবাসীর জন্য রহমত হিসেবে রেসালাতের মহান গুরু দায়িত্ব নিয়ে এ পৃথিবীতে তশরীফ আনেন। তাঁর আগমনে সমগ্র সৃষ্টিকুল আনন্দ-উল্লাস ও জুলুস করে সে আনন্দের বহি: প্রকাশ ঘটায়। কিন্তু আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের দরবার হতে লা’নত প্রাপ্ত হয়ে বিতাড়িত ইবলিশ শয়তান খুশী হতে পারে নাই। তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন আজ এক শ্রেণীর মুসলমান নামধারী কিছু লোক প্রশ্ন করে বলে ঈদে মিলাদুন্নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কোন ঈদ? তাঁরা ঈদে মিলাদুন্নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর শান-মান নিয়ে কটাক্ষ করে কথা বলে। তাদের জানা উচিত নূর নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের ভালবাসাই ঈমানের মূল। নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর শানে বেয়াদবী করে কখনও ইসলাম কায়েম করা যাবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন।

তিনি আরও বলেন সুন্নীয়ত প্রতিষ্ঠায় মাঠে ময়দানে বাতিলের বিরুদ্ধে সকল সুন্নী ওলামা মাশায়েখ ও সুন্নী জনতার ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। তিনি সকল সুন্নী পীর মাশায়েখ আলেম ওলামাকে আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের পতাকা তলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে সুন্নীয়তের ঝান্ডাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন মছলকে আহলে ছুন্নাত ওয়াল জামাতের সঠিক আক্বিদার সংরক্ষক ও প্রচারক হিসেবে মাইজভান্ডারী ত্বরীক্বার বিকল্প নেই।

সম্মেলনে উদ্বোধক ছিলেন মতি ভান্ডার দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন হযরত মাওলানা কাজি আব্দুল হালিম শাহ জয়নাল। বিশেষ অতিথি ছিলেন- ভক্তপুর হোসাইনিয়া মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা হযরতুল আল্লামা কাজী মুহাম্মদ তৌহিদুল আলম আল-কাদেরী, জনাব এম ছালামত উল্লাহ চৌধুরী চেয়ারম্যান, জনাব এস. এম. শফিউল আলম চেয়ারম্যান।

আলোচনায় অংশ গ্রহণ করেন- রাঙ্গুনিয়া গোছারা বাজার জামে মসজিদের খতিব হযরতুলহাজ্ব আল্লামা হাফেজ মুহাম্মদ রুহুল আমিন সাহেব, আমতল ছিদ্দিক্বীয়া রহমানিয়া মইনীয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা বাকের আনছারী, নাজিরহাট জে. এম. আহমদিয়া কামেল মাদ্রাসার মুহাদ্দিস আল্লামা আব্দুল ছালাম শরীফি, রাণীরহাট ইসলামীয়া ফাযিল মাদ্রাসার প্রভাষক মাওলানা আবুল কালাম বয়ানী, হাদীনগর দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন আল্লামা সহিদুল আলম শাহ আল-হাদী, হযরত মাওলানা আলী মর্তুজা সিরাজী, আলহাজ্ব কবির আহমদ (মুছার বাপ), মুহাম্মদ আবুল কাশেম তালুকদার প্রমুখ ছাড়াও আন্জুমানে রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভান্ডারীয়ার বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

মাহফিল শেষে দেশ জাতি ও মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ কামনা করে বিশেষ মুনাজাত পরিচালনা করেন আল্লামা সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্-হাসানী (ম.জি.আ.)।

সুফি দেস্ক্

This entry was posted in Uncategorized. Bookmark the permalink.

No Comments