ত্যাগের মহিমায় মহিমান্বিত এই মহররম-

ত্যাগের মহিমায় মহিমান্বিত এই মহররম-
সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ মাইজভান্ডারী (মাঃজিঃআঃ)।

১৩ ডিসেম্বর ২০১১ ইং মঙ্গলবার বাদ মাগরিব “আনজুমানে রহমানিয়া মইনীয়া মাইজভান্ডারীয়া”’র বাবুবাজার ঢাকা শাখার উদ্যোগে খলিফায়ে গাউসূল আজম হাজী মোহম্মদ আফসার উদ্দীন আল্ মাইজভান্ডারীর নেতৃত্বে শোহাদায়ে কারবালা স্মরনে এক আলোচনা,ওয়াজ মিলাদ ও জিকিরের মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত অনূষ্ঠানে প্রধান অতিথী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নবী করিম(দঃ) এর ৩১তম বংশধর সাজ্জাদানশীন দরবার-এ গাউছুল আজম মাইজভান্ডারী হযরতুলহাজ্ব মাওলানা সৈয়দ সাইফুদ্দীন আহমদ আল্ হাসানী মাইজভান্ডারী (মাঃজিঃআঃ)।

প্রধান অতিথী তাঁর বক্তব্যে বলেন- তাগের মহিমায় মহিমান্বিত এই মহররম। আলাহ ও তাঁর রাসুল (দঃ) এর দ্বীনের আদর্শ ও মর্যাদা রক্ষাকল্পে, সত্যের মানদন্ড অক্ষুন্ন রাখার লক্ষ্যে নবী দৌহিত্র ইমাম হোসাইন (রাঃ) কারবালার ঐতিহাসিক রনাঙ্গনে পরিবার পরিজন সহ শাহাদাত বরন করেন যা ইসলামের ইতিহাসের সবচেয়ে মর্মান্তিক ও হৃদয় বিদারক ঘটনা। এই মহান ইমাম অন্যায় ও মানবতা বিরোধী শক্তির বিরুদ্ধে প্রতিরোধ ও সত্যের জন্য যে ত্যাগ স্বীকার করেছেন তা আমাদের জন্য এক উজ্জল দৃষ্টান্ত। তিনি তাঁর এই ত্যাগের মাধ্যমে বুঝিয়ে গেছেন যে, সত্য ও ন্যায়ের জন্য ত্যাগেই রয়েছে মর্যাদা আর অন্যায়ের কাছে মাথানত করার মধ্যে রয়েছে বঞ্চনা আর গানী। শোহাদায়ে কারবালা থেকে অসত্য ও অন্যায় প্রতিরোধ করে সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠার জন্য ত্যাগের শিক্ষা গ্রহন করে বাংলাদেশের এই বিজয়ের মাসে দেশ প্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে আমরা ইমানদারের পরিচয় রাখতে পারি।

উক্ত মাহফিলে ওয়ায়েজীন হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মুফতীয়ে আহলে সুন্নাহ হযরতুলহাজ্ব মাওলানা নূরুল ইসলাম জামালপুরী, মুফতী আলামা বাকী বিলাহ আযহারী, আলহাজ্ব মাওলানা রুহুল আমিন ভূঁইয়া চাদপুরী,মাওলানা শেখ সাদী আবদুলাহ সাদকপুরী,মাওলানা আবদুস সাত্তার আল্ মাইজভান্ডারী।
পরিশেষে দুরুদ-সালাম ও জিকিরের পর সম্মানিত প্রধান অতিথি আলাহ রাব্বুল আলামীনের দরবারে সকল মুসলিম উম্মাহ ও বাংলাদেশের শান্তি-সম্প্রীতি-ঐক্য কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করেন।

This entry was posted in Uncategorized. Bookmark the permalink.

No Comments